16 February 2015

OUT OF BOUND -নিষিদ্ধ যাতায়াত

নিষিদ্ধ যাতায়াত 
১৬ /২/১৫

১৯৭২ সালের এপ্রিল মাসে শোয়েব ও শাহীন মালনিছড়া চা বাগানের উল্টা পাশের এক নিভ্র্ত পাহাড়ি পথে হাটতে যেয়ে হোচট খেয়ে আবিষ্কার করলো - একটা ১৯৭১ সালের অব্যহৃত গোলা - শাহীন - তামজিদ শাহীন নিজের অজান্তে হারিয়ে গেল সেই একাত্তুরের অগ্নিঝরা দিন গুলোতে। 
বি বাড়িয়া থেকে কপর্দকহীন অবস্তায় কোনো রকমে জান নিয়ে পালাতে হয়েছিল সম্পূর্ণ পরিবার নিয়ে - রাতের অন্ধকারে- বিভীষিকাময় আমাবস্সা রাত- হাজার হাজার মানুষের ঢল - নিখিপ্ত্র বিস্তৃত যেন এক মহা কাফেলা ; জান , প্রাণ নিয়ে ভাগছে - ভাগছে কোথায়  - অগস্ত যাত্রা। 
''এ তুফান ভারী দিতে হবে পারি , কান্ডারী হুশিয়ার।'' রাত গভীর - হাটার শেষ নাই , ভয়, কামানের গর্জন,তৃষ্ণা,ভীতি,কালো আধার - না জানা গন্তব্যে যাত্রা - শাহীন মনে মনে ডাকছে আল্লাহ কে আর উচ্চারণ করছে ''লা ইলাহা। ....জোয়ালেমিন " .
পিছনে থেকে ধাওয়া যারা রত ওদের মুখেও একই নাম - ইয়া আলী, আল্লাহ হু একবার। ..ধরনী প্রকম্পিত - এত বড় ব্যাপক প্রকট আওয়াজ আর জীবনেও শুনি নি ওরা। 

পথ তো আর ফুরায় না- ক্লান্ত - ক্ষুদার্থ - তৃষ্ণার্থ - ভয়ে বিহ্বল এক ১০ বছরের বালক সে শাহীন।
চোখে তার ভীতি, চিন্তিত, শুষ্ক কন্ঠনালী - মুখ্থেকে কথা বের হচ্ছে না তার আর; রাত আরো গভীর হলো - পাঘাচং নামক এক ইস্টিসন এর  নিকট এক গ্রামে এক  বাড়ির বাংলো ঘরের পাশেই ক্লান্ত অবসন্ন্ অবস্থায় সবাই আর এগুতে পারল না।  গুগ্গলে সেদিন হিসেব করে দেখলো  যে এক রাতে জীবনে এই প্রথম ১৮.৭ কিলোমিটার হাটল ওরা।  প্রকট থেকে প্রকটতর হতে  থাকলো কামের গোলার  আওয়াজ।  চমকে চমকে উঠ্থে থাকলো ঘুম থেকে, বিচুলিতে, খোলা আকাশের নিচে রাত্রি যাপন - এক ভিন্ন ধরনের অভিজ্ঞতা।  না বালিশ , না চাদর, না পরিছন্ন ঘর, এক তুফান , এক ঝর, এক ভয়ঙ্কর আওয়াজের তান্ধপতায় জীবন কেমন এক দিনের ব্যবধানে ছিন্ন বিছিন্ন একা কার.............

পায়ের ফোস্কা, ব্যাথা , পা গুলো ফুলে জুতায় আর ঢুকে না - মুজা গুলোও পড়ার মত রইলো ন, কন্ঠ শব্দবিহীন, ক্লান্তিতে কাতর শাহীন - সকালের সুরজের আলোতে  ফেল ফেল করে তাকিয়ে দেখছে তার চার পাশের পরিতক্ততা - কিংকর্তব্য বিমুড়ো।  জীবনের এক নতুন অধ্যায়ের অযাচিত অবতারণা। .........................

শোয়েব এর পাশে কখন যে এসে দাড়িয়ে আছে রাজু দত্ত - শাহীনের  নতুন বন্ধু - নতুন সাইকেল চালাবার সংঘী - ভাবছে ইশ যদি একটা সাইকেল থাকত।  এত দুর্গম পথ পরিক্রমণ করতে হতো না পায়দল। .............চলবে। ...





Post a Comment